আগামী বিধানসভায় ভাঙড়ে প্রার্থী হচ্ছেন মাদ্রাসা শিক্ষক?

নিজস্ব সংবাদদাতা: ভাঙড়ের রাজনীতিতে এবার কি তাহলে নতুন মুখের আবির্ভাব ? চারিদিকে কান পাতলেই এমনই ফিসফিস শোনা যাচ্ছে!

শোনা যাচ্ছে ভাঙড়ের এক ভূমিপুত্র, দীর্ঘদিনের সংখ্যালঘু আন্দোলনের নেতা, একাধারে তিনি লেখক, সাংবাদিকও। একটা নাম চর্চায় রয়েছে যে এবার ভাঙড় বিধানসভায় বিরুদ্ধেই ভোটে লড়াই করতে চলেছেন।

সম্প্রতি বেশ কয়েক বছর ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাঙড়ের অনুন্নয়ন নিয়ে সরব রয়েছেন তিনি।কিছুদিন আগে আব্বাস সিদ্দিকী বনাম শওকত মোল্লার ঝামেলার পর থেকেই বরাবরই তিনি আব্বাস সিদ্দিকীর পক্ষ নিতে দেখা গেছে। যদিও সেটা ওনার স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে সেটা করেছেন। কারণ সংখ্যালঘু ততা মুসলিম সমাজের জন্যে চিন্তাভাবনার ফলশ্রুতি বলে ভাবাই যায়। কিন্তু তিনি এক্ষেত্রে রীতিমতো গর্জে উঠেছেন। এখান থেকে সন্দেহ তৈরি হয়েছে। সেই সূত্র ধরেই হয়তো অনেকেই বলছেন আব্বাস সিদ্দিকীর দল থেকে প্রার্থী হচ্ছেন তিনি।

ভাঙড়ে সাধারণ মানুষের বারবার ক্ষোভ বিক্ষোভ রয়েছে এখানকার নেতাদের বিরুদ্ধে। ভাঙ্গড়ের রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা, চিকিৎসা ব্যবস্থার দুর্দশা ও আম্ফান দুর্নীতি নিয়ে ভাঙড়ের তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অনেকেই। সেইসাথে তৃণমূল ছেড়ে আব্বাস সিদ্দিকী সংগঠনে দলে দলে যোগ দিচ্ছে ভাঙড়ের উঠতি প্রজন্মের তরুণ যুবকেরা। যদিও জাতীয় কংগ্রেসেও মানুষের যোগ দিতে দেখা যাচ্ছে। কীন্তু আব্বাস সিদ্দিকীর দলে যোগ দেওয়ার স্রোতটা বেশি।।

বর্তমানে সেই আব্বাস সিদ্দিকীকেই সমীহ করে চলেছেন ভাঙড়ে এই প্রাক্তন লড়াকু সংখ্যালঘু নেতা। এরফলে বিভিন্ন মানুষের মুখে মুখে ছড়িয়ে পড়েছে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে আব্বাস সিদ্দিকীর দল থেকে ভাঙ্গড়ের প্রার্থী হচ্ছেন তিনি।

তবে এ বিষয়ে আব্বাস সিদ্দিকীর কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। ভাঙড়ের চর্চিত বিরোধী প্রার্থীর প্রতিক্রিয়া নিতে ফোন করে পাওয়া যাচ্ছে না ম্যাসেজের উত্তরও দিচ্ছেন না।

সব মিলিয়ে বলা যেতে পারে ,ভাঙড়ে যেভাবে তৃণমূলের ধস নামছে, এবং আব্বাস সিদ্দিকী দলে যোগ দেবার যে প্রবণতা বেড়েছে তাতে যে কেউ প্রার্থী হোক না কেন আব্বাস সিদ্দিকীর দলের জয় সুনিশ্চিত হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *