হিন্দুত্ববাদীদের ঘৃণার শিকার ওয়াসিম জাফরের পাশে কুম্বলে, ইরফান; বিরাট, সচিন চুপ কেন এখন?

নিউজ ডেস্ক : সাফল্যের সঙ্গে বহুদিন উত্তরাখণ্ডের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করার পর হিন্দুত্ববাদীদের কদর্য আক্রমণের কারণে পদত্যাগ করতে হলো ওয়াসিম জাফর কে। তার অপরাধ তিনি নামাজ পড়েন। তার অপরাধ তিনি একজন মুসলিম ইকবালকে বাদ দিয়ে একজন হিন্দু জয় বিস্তাকে উত্তরাখণ্ড এর ক্যাপ্টেন মনোনীত করতে চেয়ে ছিলেন। এই রকম নানা কারণ দেখিয়ে ভারতের এককালের তারকা ব্যাটসম্যান ওয়াসিম জাফরকে সাম্প্রদায়িক বলে আক্রমণ করে উত্তরাখণ্ডের ক্রিকেট বোর্ডের কিছু কট্টর হিন্দুত্ববাদী সদস্য। নিজের সম্মান বাঁচাতে এই সপ্তাহের শুরুতেই নিজের পথ থেকে ইস্তফা দেন তিনি। উত্তরাখন্ড ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ না করলেও। তিনি সাংবাদিকদের বারংবার করা প্রশ্নের জবাবে বলেছিলেন, ক্রিকেটীয় বিষয়ে বোর্ডের মাত্রাতিরিক্ত হস্তক্ষেপের কারণে তিনি তার পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছেন।

পরবর্তীতে কট্টর হিন্দুত্ববাদী অপপ্রচারকারীদের সব অপপ্রচারের জবাব তিনি টুইট করে বিনম্র ভাষায় দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, তিনি নামাজ পড়েন ঠিক কিন্তু তার জন্য কখনোই ক্রিকেটকে অবহেলা করেনি। কিংবদন্তি ভারতীয় ব্যাটসম্যান বর্তমানে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব এর ব্যাটিং কোচ। তিনি জানিয়েছেন আমি কোনদিন কোন মৌলভীকে আমন্ত্রণ জানায়নি। উত্তরাখণ্ড ক্রিকেট বোর্ডের তরফ থেকে একটি ধর্মীয় স্লোগান ব্যবহার করা হতো। আমি তার পরিবর্তে “গো উত্তরাখণ্ড” ব্যবহার করতে বলেছিলাম। তিনি আরো বলেছেন যদি আমি সাম্প্রদায়িক মনোভাব নিয়ে কাজ করতাম তাহলে সামাদ ফালাহ এবং মোহাম্মদ নাজিম নিয়মিত উত্তরাখণ্ডের সব ম্যাচ খেলতে পারত। তার সুস্পষ্ট অবস্থান এর পরেও তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে একশ্রেণীর হিন্দুত্ববাদী ক্রিকেট প্রেমীরা।

অবশেষে তার পাশে দাঁড়ালেন ভারতের কিংবদন্তি স্পিন বোলার অনিল কুম্বলে। জানালেন, “আমি তোমার সঙ্গে আছি ওয়াসিম। তুমি ঠিক কাজ করেছো।” অন্যদিকে ভারতের সর্বকালের সেরা সুইং বোলার ইরফান পাঠান ওয়াসিম জাফর এর বর্তমান অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে আফসোস করে লিখেছেন, দুর্ভাগ্যক্রমে ওয়াসিম জাফরকে এইসব বিষয়ে ও ব্যাখ্যা দিতে হচ্ছে। তবে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠছে, কিছুদিন আগে সামান্য এক বিদেশি সেলিব্রিটির কৃষক আন্দোলনকে নিয়ে করা টুইটের কারণে ভারতের পুরো ক্রিকেট জগতের বেশিরভাগ সদস্যরা সরব হয়েছিলেন, কিন্তু আজ ক্রিকেট জগতের এক নক্ষত্রের বিরুদ্ধে এমন কলঙ্কলেপনের বিরুদ্ধে ব্যাপারে কেন নীরব এইসব তথাকথিত ধর্ম নিরপেক্ষ ক্রীড়াবিদরা! তাহলে কি তাদের সবকিছুই গেরুয়া শিবির নিয়ন্ত্রিত?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *