নিজের দলের সভাপতির হাতেই খুন বিজেপি কর্মী,গ্রেফতার বিজেপি নেতা

নিউজ ডেস্ক : এবার নিজের দলেরই নেতাকে খুব করলেন আরেক বিজেপি নেতা। সে কারণে পুলিশের হাতে আটক ও হয়েছেন তিনি। প্রথমে বিষয়টি নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের ঘাড়ে দোষ চাপাতে চাইলেও পরে বিজেপির মুখোশ খুলে দেয় নিহত কর্মীর স্ত্রী। রাজ্যে নির্বাচনের প্রাক্কালে এমন আদি নয়া বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব অস্বস্তিতে রেখেছে রাজ্যের গেরুয়া শিবিরকে।

বীরভূমের দুবরাজপুরে বিজেপির কর্মীর মৃত্যুকে ঘিরে বিপাকে গেরুয়া শিবির। স্বামীর মৃত্যুর পিছনে দলের বুথ সভাপতির ভূমিকা রয়েছে বলে চাঞ্চল্যকর দাবি করে বসলেন দুবরাজপুরে নিহত বিজেপি কর্মীর স্ত্রী। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ এদিন গ্রেপ্তার করল স্থানীয় বিজেপির বুথ সভাপতি দুলাল ডোমকে। মঙ্গলবার সকালে বীরভূমের দুবরাজপুরের লোবা গ্রাম পঞ্চায়েতের ফকিরবেরা গ্রামে পাতিহার ডোম নামে এক বিজেপি কর্মীর মৃতদেহ উদ্ধার হয়। পাতিহার ডোম নামে ওই বিজেপি কর্মীর দেহ উদ্ধারের পর থেকেই দুবরাজপুরে তীব্র উত্তেজনা তৈরি হয়। কিন্তু মৃত বিজেপি কর্মী পাতিহার ডোমের স্ত্রী জয়শ্রী ডোম পুলিশকে বারবার অভিযোগ জানান, তাঁর স্বামীকে স্থানীয় বিজেপি বুথ সভাপতি দুলাল ডোম ও তার লোকজন পরিক্লপনা করে হত্যা করেছে। বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে মারা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

 

তাঁর আরও দাবি, আমার স্বামী এলাকায় বহুদিন ধরে বিজেপি করত। আর এই স্থানীয় বিজেপির বুথ সভাপতি দুলাল ডোম দলে নতুন এসে সবাইকে অত্যাচার করত। এই অভিযোগ কেন্দ্র করে ভোটের মুখে যথেষ্ট বিপাকে বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, মৃত বিজেপি কর্মীর স্ত্রীকে তৃণমূলের লোকেরা তুলে নিয়ে গিয়ে ভয় দেখিয়ে এইসব মিথ্যা কথা বলাচ্ছে। এই খুনের সঙ্গে বিজেপির কেউ জড়িত নয়। তৃণমূল চক্রান্ত করে ফাঁসাচ্ছে বিজেপির বুথ সভাপতিকে। যদিও তৃণমূলের তরফে দাবি করা হচ্ছে বিজেপির আদি এবং নব্যদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই এই খুন। বিজেপির নব্যরা আদিদের উপর আক্রমণ চালাচ্ছে। বিজেপি হারবে বুঝেই এখন হিংসা ছড়াচ্ছে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় মোতায়েন রাখা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *