Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

অযোধ্যা, মথুরা এবং কাশী আমাদেরকে বিদেশী আক্রমণকারীদের আক্রমণের কথা মনে করিয়ে দেয়: বিজেপি নেত্রী উমা ভারতী

NBTV ONLINE DESK

NBTV ONLINE DESK

image

জ্ঞানবাপি মসজিদের বাইরের দেওয়ালে থাকা হিন্দু দেবদেবীদের পুজো করার অনুমতি চেয়ে পাঁচজন মহিলা আর্জি জানিয়েছিলেন বারাণসী জেলা আদালতে। বিচারক এ কে বিশ্বেশ বলেন এই দেব-দেবীদের উপাসনা করার অধিকার চেয়ে করা পিটিশনের শুনানি অব্যাহত থাকবে।

কোর্টের এই রায়কে স্বাগত জানালেন বিজেপি নেত্রী উমা ভারতী। সেইসাথে তিনি একে অপরকে সংযত থাকারও অনুরোধ জানিয়েছেন।

তিনি মন্তব্য করেন যে অযোধ্যা, মথুরা এবং কাশীর মতো জায়গা “দেশে একতা আনবে”।

জ্ঞানবাপী মসজিদ

উল্লেখ্য, সোমবার বারাণসী আদালত জ্ঞানবাপী মসজিদ প্রাঙ্গণে উপাসনার অধিকার চেয়ে পাঁচ হিন্দু মহিলার দায়ের করা মামলাকে চ্যালেঞ্জ করে আঞ্জুমান ইসলামিয়া মসজিদ কমিটির একটি আবেদন খারিজ করার পরে বিজেপি নেতা মন্তব্য করেন।

নিউজ সংস্থা এএনআই-এর সাথে কথা বলার সময় ভারতী বলেন, “আমি বলেছিলাম যে এই তিনটি স্থান (অযোধ্যা, মথুরা এবং কাশী) সম্পর্কিত সমস্যার সমাধান না করে আমরা শান্তিতে থাকতে পারব না কারণ এই স্থানগুলি আমাদেরকে বিদেশী আক্রমণকারীদের আক্রমণের কথা মনে করিয়ে দেয়। এমন জিনিস থাকতে দেওয়া উচিত নয় যা হৃদয়কে কষ্ট দেয় এবং ক্রোধের সৃষ্টি করে। যে ভক্তরা আজ কাশী ও মথুরায় যান, তারা কি খুশি থাকেন? তারা বেদনাদায়ক হৃদয় নিয়ে বেরিয়ে আসেন এবং সেই ব্যথা মাঝে মাঝে ক্রোধে পরিণত হয়।”

“অযোধ্যায় শান্তির সঙ্গে রাম মন্দির তৈরি হচ্ছে। পরিবেশটা হঠাৎ করেই খারাপ হয়ে গেল। আমি উভয় পক্ষকে এই বিষয়ে খুশি থাকার জন্য অনুরোধ করছি যে আপনার আবেদনগুলি শুনানির যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছে। তবে অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করবেন না এবং অন্যদের অপমান করবেন না,” তিনি যোগ করেন।

আদালত মুসলিম পক্ষের আবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে এবং বলেছে মামলাটি গ্রহণযোগ্য। জ্ঞানবাপি মসজিদ মামলায় হিন্দু পক্ষের প্রতিনিধিত্বকারী অ্যাডভোকেট বিষ্ণু শঙ্কর জৈন জানান মামলার পরবর্তী শুনানি 22শে সেপ্টেম্বর।

জ্ঞানবাপি মামলার আবেদনকারী সোহান লাল আর্য,  বলেন “এটি হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য একটি জয়। পরবর্তী শুনানি 22শে সেপ্টেম্বর। এটি জ্ঞানবাপী মন্দিরের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর।

আপনার মতামত প্রদান করুন!

সর্বাধিক পঠিত খবর

সর্বশেষ খবর