দুয়ারে নির্বাচন! অভিষেকের স্ত্রী, ফিরহাদের মেয়ের পর এবার অভিষেকের শ্যালিকার পিছনে সিবিআই

নিউজ ডেস্ক : তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সিবিআই তৎপরতার জেরে বেশ কিছুদিন ধরে অতিষ্ঠ আছেন পরিবারের সদস্যরা। নির্বাচনের ঠিক আগে সন্দেহজনকভাবে একের পর এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিচ্ছে সিবিআই সিবিআই, করা হচ্ছে জিজ্ঞাসাবাদ। ডায়মন্ড হারবারে থাকা অভিষেকের স্ত্রী রুজিরার পর এবার সিবিআইয়ের নজর শ্যালিকা মেনকা গম্ভীর এর উপর। মুখ্যমন্ত্রী মেনকা গম্ভীরের বাড়িতে উপস্থিত হয় কেন্দ্রীয় আধিকারিকরা। মেনকার আবাসনে অনুপ্রবেশের পূর্বে সিবিআই আধিকারিক ও মেনকার আবাসনের নিরাপত্তারক্ষীদের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ চলে মৌখিক সংঘর্ষ ও আবাসনের অনুপ্রবেশের বাধা দেয়ার চেষ্টা।

শেষ পর্যন্ত বিভিন্ন তর্কাতর্কির পরে সিবিআই আধিকারিকদের আবাসনের ভিতরে অনুপ্রবেশের অনুমতি দেয়া হলেও অনুমতি দেয়া হয়নি গাড়ি প্রবেশ। সিবিআই সূত্রে, অভিষেকের নিকটস্থ সমস্ত আত্মীয়দের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। কারণ হিসেবে, কয়লা কাণ্ডের তদন্তে উঠে এসেছে বেশ কিছু নতুন নতুন তথ্য। যার মধ্যে সন্দেহ আবেশে বশীভূত হওয়ার হওয়ার জন্য সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করছে লন্ডনের একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট। লন্ডনের একটি ব্যাংকে প্রচুর টাকা লেনদেন করা হয়েছে এবং সে সম্পর্কে বিশেষ তথ্য হাসিল করতে চায় সিবিআই।

আবার ওদিকে কলকাতার মেয়র এবং পুরো ও নগর উন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের মেয়ের বিরুদ্ধেও নোটিশ জারি করেছে সিবিআই বলে খবর বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনো পর্যন্ত সুস্পষ্ট কিছু জানা যায়নি ফিরহাদ হাকিম এর তরফ থেকে। আজ তিনি বলেন আমার মেয়ের কাছে এখনো কোনো নোটিশ আসেনি। তবে নির্বাচনের আগে তৃণমূল কংগ্রেসের বিভিন্ন নেতা এবং তাদের আত্মীয় দের প্রতি ওদের বিরুদ্ধে যেভাবে সিবিআই তৎপর হয়ে উঠেছে তার পেছনে অন্য কিছুর গন্ধ পাচ্ছে রাজনৈতিক মহল। বিভিন্ন ক্ষেত্রে সিবিআই, ইডি, এন আই এ এর মত সংস্থাগুলিকে রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার করতে দেখা গেছে কেন্দ্রের মোদি সরকারকে। এবার ও আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বে রাজ্যে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে সিবিআই তৎপরতা মোদি সরকারের অভিসন্ধি মূলক চক্রান্ত বলে মনে করছে তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও বামদলগুলোর তরফ থেকে সূর্যকান্ত মিশ্র বলেছেন তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে আছে গোপন আঁতাত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *