‘অসুর’ কেষ্টাকে বধ করছেন ‘দুর্গা’ মমতা, ছবি পোস্ট করে গ্রেপ্তার যুবক

 

নিউজ ডেস্ক: পুজোয় এবার চমক বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর আদলে তৈরি হচ্ছে দশভুজা দুর্গা। পূর্ব কলকাতার উপকণ্ঠে একটি পুজোয় স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদলে দেবী মূর্তি দেখা যাবে। এই নিয়েই এখন জোর আলোচনা শহরে। তার মাঝে সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘দুর্গা’ এবং বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে  অসুর বানিয়ে আটক সিউড়ির এক যুবক। গ্রেপ্তার হওয়া ওই যুবকের নাম বর্ণ মণ্ডল। জানা গিয়েছে, সিউড়ি থানার অন্তর্গত দমদমা গ্রাম পঞ্চায়েতের পতণ্ডা গ্রামে তার বাড়ি।

জানা যাচ্ছে সিউড়ি থানার দমদমা গ্রাম পঞ্চায়েতের পতণ্ডা গ্রামের বাসিন্দা ওই যুবক সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিটি পোস্ট করেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে অসুর অনুব্রত মণ্ডলের ঘাড়ে পা রেখে নটরাজ মূর্তিতে দাঁড়িয়ে আছেন মা দুর্গা রূপী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপরেই তৃণমূলের তরফ থেকে সিউড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বর্ণ মণ্ড নামের ওই যুবককে সিউড়ি থানার পুলিশ আটক করে।

মমতা ও অনুব্রতকে নিয়ে ছবি পোস্টের পাশাপাশি ধৃত বর্ণ নিজের ফেসবুকে লক্ষ্মী ভাণ্ডারের লম্বা লাইনের ছবি তুলে লিখেছিল ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার পূর্ণ’। এরপরেই স্কুলের ফাঁকা চেয়ার বেঞ্চের ছবি দিয়ে লিখেছিল ‘সরস্বতীর ভাণ্ডার শূন্য’। এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই ক্ষুব্ধ হয়ে পরেন তৃণমূলের নেতা কর্মীরা। দলের ব্লক সভাপতি নুরুল ইসলাম সিউরি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নুরুলের দাবি, রাজনৈতিক উদেশ্যে বিজেপি এসব করেছে। ওই যুবক কোন রাজনৈতিক দল অথবা কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত কিনা তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে সিউড়ি থানার পুলিশ, এমনটাই জানা যাচ্ছে পুলিশ সূত্রে।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বীরভূম জেলা সহ-সভাপতি উত্তম রজক দাবি করেছেন, ”ওই ছেলেটি সম্পূর্ণভাবে তৃণমূল ঘরানার ছেলে। আর বিজেপি কখনো এমন ধরনের কাজ করতে পারে না। এখন এই ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর তৃণমূল নিজেদের ঘাড় থেকে দোষ এগিয়ে যাওয়ার জন্য বিজেপির নামে দোষারোপ করছে। আমাদের ওই এলাকায় আইটি সেলের অন্য ছেলে আছে।” জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্র ত্রিপাঠি জানান, বর্ণকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *