ইসরাইলি আক্রমণ ও অত্যাচারের প্রতিবাদে ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের অনশন ধর্মঘটের প্রস্তুতি

নিউজ ডেস্ক : সাবেক ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের কল্যাণে কাজ করা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে ১৩৮০ ফিলিস্তিনি কারাবন্দী অনশন ধর্মঘটের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের ওপর ইসরাইলি আক্রমণ ও অত্যাচারের প্রতিবাদে তারা আগামী শুক্রবার থেকে এ ধর্মঘট করার পরিকল্পনা করছেন। সোমবার বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে এমন তথ্য জানিয়েছে এ ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের কল্যাণে কাজ করা সংগঠনটি।

সাবেক ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের কল্যাণে কাজ করা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিভিন্ন কারাগারে ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের ওপর ইসরাইলি আক্রমণের প্রতিবাদে এ অনশন ধর্মঘট করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এ সংগঠনটির বিবৃতিতে এ বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়েছে যে ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের ওপর ইসরাইলি প্রশাসন যে নির্মম আক্রমণ ও অত্যাচার চালাচ্ছে, তার প্রেক্ষিতে কারাবন্দীদের সংগঠনগুলো নিজেদের মানবাধিকার রক্ষায় আগামী শুক্রবার থেকে এ ধর্মঘট করার পরিকল্পনা করছে। ‘অধিকার রক্ষার যুদ্ধ’ শ্লোগান তুলে তারা এ ধর্মঘট করার পরিকল্পনা শুরু করেছেন।

ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংগঠনগুলো পরিকল্পনা করছে তীব্র আন্দোলন শুরু করার। এ ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের আন্দোলনের অন্যতম লক্ষ্য হলো বর্তমানে যারা এ কারাগারগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করছে তাদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া।

ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংগঠনগুলো বিভিন্ন যৌক্তিক দাবিও পেশ করেছে। ওই দাবিগুলো হলো, ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের ওপর অত্যাচার ও নিপীড়ন বন্ধ করতে হবে। তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করা ও জোরপূর্বক অন্য জেলে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া বন্ধ করতে হবে। নির্জন কারাগারে একা বন্দী করে রাখা ব্যক্তিদের ওপর যে সকল নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয় তাও বাতিল করার নীতি গ্রহণ করতে দাবি করা হয়েছে। এছাড়া ৫ সেপ্টেম্বরের আগে কারাগারে যে পরিস্থিততি ছিল তা পুনর্বহালের আবেদন করা হয় এবং কারাগারে পরিবারের সদস্যদের সাথে সাক্ষাতের ব্যবস্থা করার দাবিও তোলা হয়।

ইসরাইলি কারাগারে স্বৈরাচারী আচরণ ও নিপীড়ন বন্ধে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার ও আইনি সংগঠনকে আহ্বান জানিয়েছে ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের নিয়ে কাজ করা কমিশন। ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের অধিকারের প্রতি সম্মান জানাতে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানিয়েছে ওই কমিশন। এছাড়া ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের অতাচার করা জন্য ইসরাইলি কর্তৃপক্ষকে জবাবদিতিতার আওতায় আনার কথাও বলা হয়েছে।

এদিকে ইসরাইলি করাগারগুলোতে ফিলিস্তিনি কারাবন্দীদের ওপর বিভিন্ন ধরনের শাস্তি আরোপ করা হচ্ছে। ফিলিস্তিনি করাবন্দীদের ওপর হঠাৎ আক্রমণ, খারাপ আচারণ, পিটানো ও অন্য কারাগারে হস্তান্তরের ঘটনা প্রতিনিয়ত হচ্ছে।

সূত্র : নয়া দিগন্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *