মেয়েদের সম্মান করা আপনাদের ধাতে নেই, বিজেপিকে কঠিন শিক্ষা দিলেন সায়নী

দুমাস আগে বিজেপির ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি নিয়ে মুখ খুলে আক্রমণের মুখে পড়েছিলেন সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh)। ঘটনার পর, বিজেপি নেতা তথাগত ঘোষের সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন টুইট যুদ্ধে। আর তারপরই ২০১৫-য় শেয়ার করা একটি মিম ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু কম ট্রোল হতে হয়নি অভিনেত্রীকে। তবে প্রথম থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলের প্রতিবাদ করেছেন সায়নী ঘোষ। এই প্রতিবাদে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ব্যক্তিত্বদের পাশাপাশি সায়নী পাশে পেয়েছিলেন তৃণমূল নেতৃত্বকে। পরবর্তী সময়ে তৃণমূলে যোগ দিয়ে আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হয়েছেন সায়নী ঘোষ। এবার ফের একবার সোশ্যাল মিডিয়া ট্রোলিং নিয়ে BJP-কে আক্রমণ করতে ছাড়লেন না সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh)।

শনিবার BJP-কে খোলা চিঠি লিখলেন সায়নী (Saayoni Ghosh)। চিঠির বিষয়বস্তু, ”অন্যকে কষ্ট দিয়ে নিজে শান্তিতে থাকার চেষ্টা।” লম্বা পোস্টে সায়নী লেখেন, ”Dear Bjp, আপনাদের এই পার্সোনাল অ্যাটাক বা স্মিয়ার ক্যাম্পেইন, ট্রোল বা মিম, আমাদের চলচ্চিত্র জগতের মানুষের কাছে নতুন নয়। চিরাচরিত এবং বাধাগত ফর্মুলা নিয়ে মানুষের মধ্যে ভ্রান্তি ছড়ানো, তাঁদের মনে ব্যক্তি সম্পর্কে ভুল ধারনা তৈরি করা, মেরুকরণ আপনাদের বাধাগত ছক। তবে এইটুকু মনে রাখতে হবে যে আমরা বাংলার অনেক পুরনো সহচর। বাংলার মানুষের ভালোবাসা আমাদের প্রতিষ্ঠিত করেছে। বোঝাই যাচ্ছে আপনারা একটু অস্বস্তিতে পড়েছেন। আমাদের বিরুদ্ধাচারণ এটা আরও মানুষের কাছে পরিষ্কার করে দিচ্ছে মানুষের কাছে। আর মেয়েদের সম্মান করা আপনাদের ধাতে নেই। আর তা থাকবেই বা কেন!! আপনাদের দলের নেতাই যখন আদ্যাশক্তি, মহামায়া, দেবী দুর্গার বংশপরিচয় নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। আগে নিজের দলের মহিলাদের নিঃশর্তভাবে সম্মান করতে শিখুন। বেশি কথা বাড়ালে আপনারাই অস্বস্তিতে পড়বেন। এছাড়া বাংলার মানুষের মনোভাব, মুখের ভাষা বিষিয়ে দিতে আপনাদের জুড়ি মেলা ভার। ধার করতে আপনারা ওস্তাদ। তা আমাদের দলের থেকে নেতা হোক বা পরিবর্তনের স্লোগান।” সব শেষে  #GrowUpBjp হ্যাশট্যাগে লিখেছেন এত ভয় ভালো না বাবুমশাই। 

তবে সায়নী যে বিজেপিকে কঠিন ভাষায় বুঝিয়ে দিচ্ছেন যে তাকে চুপ রাখা যাবে না এটা বিজেপি এবং তাদের ট্রল আর্মির জন্য ভালো খবর না সেটা অনেকে মনে করছেন। কারণ বিভিন্ন সময়ে বিজেপি এবং আরএসএস এর নেতারা মহিলাদের ব্যাপারে আপত্তিকর মন্তব্য করে থাকেন। কিছুদিন আগে বাবুল সুপ্রিয় বা তার আগে মোহন ভাগোয়াট অনেকেই আছে মহিলাদের অপমান করার জন্য সামনের সারিতে। তাই জন্যই সায়নী বিজেপিকে এই ভাষায় আক্রমণ করলেন বলে মনে করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *