হিন্দু ভোট কেটে যোগীর কোমর ভাঙতে উত্তর প্রদেশে ১০০ আসনে প্রার্থী দেবে শিবসেনা

 

নিউজ ডেস্ক : এবার উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে সর্বশক্তি নিয়ে নামতে চলেছে শিবসেনা। সবক’টি বিধানসভা আসনে প্রার্থী দিতে চলেছেন উদ্ধব ঠাকরে। সামনেই উত্তর প্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। হাতে আর ছয় মাসও বাকি নেই। আর এর মধ্যেই উত্তর প্রদেশের মাটিতে নিজেদের পায়ের তলার মাটি মাপতে শুরু করে দিয়েছে প্রতিটি দল। বিজেপি, কংগ্রেস তো ছিলই, এবার শিবসেনাও সেখানে প্রার্থী দিতে চলেছে।রাম মন্দির আন্দোলনে তাঁরাও অংশীদার। তাই উত্তরপ্রদেশে হিন্দুত্ববাদী ভোটে যোগী আদিত্যনাথ তথা বিজেপিকে ওয়াক ওভার দিতে নারাজ শিব সেনা। উদ্ধব ঠাকরে ঘোষণা করলেন, আগামী বছর উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে অন্তত ১০০টি আসনে প্রার্থী দেবে শিব সেনা। রবিবার দলের প্রধান মুখপাত্র তথা রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় রাউত একথা জানিয়েছেন।

শিবসেনা উত্তর প্রদেশের তরফে এক প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, শিবসেনা মানুষের কণ্ঠ হয়ে কাজ করবে। আর শিবসেনার প্রার্থীরা উত্তর প্রদেশের সব আসনে বিজেপি প্রার্থীদের বিরুদ্ধে লড়বেন। প্রতিটি আসনে ভোটের লড়াই আরও জোরদার করার জন্য দলীয় স্তরে কো-অর্ডিনেটর নিয়োগ করা হয়েছে।

সেনা সূত্রের খবর, শুধু নামমাত্র সব আসনে প্রার্থী দিয়ে দুর্নাম কুড়োতে চায় না দল। বরং, তাঁরা চাইছে বাছাই করা ১০০টি আসনে ভালমতো লড়াই করতে। যাতে উত্তরপ্রদেশে দলের সংগঠনও বাড়ে। আবার উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের ভোটে ভালমতো ভাগ বসিয়ে বিজেপিকে বড়সড় ধাক্কাও দেওয়া যায়। সেই লক্ষ্যেই পরিকল্পনা বদলে ফেলেছে সেনা। শিব সেনার এই পরিকল্পনা বদল বিজেপির জন্য দুঃসংবাদ হতে পারে। কারণ সেনা সূত্রের খবর, তাঁরা মূলত বিজেপির কোর হিন্দু ভোটব্যাংকে থাবা বসানোর চেষ্টা করবে। সেই মতোই বাছাই করা হবে প্রার্থী। প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে গুরুত্ব পাবে উচ্চবর্ণের মানুষেরা। যা কিছুটা হলেও বিজেপির ভোটব্যাংকে ভাগ বসাতে পারে।
প্রসঙ্গত শুধু উত্তরপ্রদেশে নয়। আগামী বছর গোয়াতেও রীতিমত প্রভাবশালী রাজনৈতিক শক্তি হিসাবে উঠে আসার লক্ষ্য নিয়েছে শিব সেনা। গোয়াতে মহারাষ্ট্রের শাসক দল কুড়িটির বেশি আসনে লড়তে চায়। অন্য দলের সঙ্গে জোটের রাস্তাও তাঁরা খোলা রেখেছে। শুধু উত্তরপ্রদেশে নয়। আগামী বছর গোয়াতেও রীতিমতো প্রভাবশালী রাজনৈতিক শক্তি হিসাবে উঠে আসার টার্গেট নিয়েছে শিব সেনা। গোয়াতে মহারাষ্ট্রের শাসক দল কুড়িটির বেশি আসনে লড়তে চায়। অন্য দলের সঙ্গে জোটের রাস্তাও তাঁরা খোলা রেখেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *