Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে আন্দোলন, অ্যাক্টিভিস্ট এর বাবা মা বোনকে আটক, ধ্বংস করতে চলেছে বাড়ি

NBTV ONLINE DESK

NBTV ONLINE DESK

image-5

সারা দেশের মত উত্তরপ্রদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে নুপুর শর্মার গ্রেফতার দাবীতে আন্দোলন। আর সেই আন্দোলনকে বন্ধ করতে উঠে পড়ে লেগেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

জহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রনেতা আফরিন ফাতিমার বাবা, মা ও বোনকে তুলে নিয়ে গেছে ইউপি পুলিশ। শুক্রবার রাতে হঠাত করেই পুলিশ এসে কথা বলার জন্য আফরিন ফাতিমার বাবা জাভেদ মোহাম্মদকে ডাকে।

পুলিশের ডাকে সাড়া দিয়ে তিনি তার স্কুটি নিয়ে পুলিশের সাথে বেরিয়ে যান। এরপরে ১৮ ঘন্টা কোন খবর পায়নি আফরিনের পরিবার। ১৮ ঘণ্টা পরে পুলিশ এসে আফরিন ফাতিমার মা ও বোনকে তাদের ফোন নিয়ে তাদের সাথে আসতে বলে।

এই ঘটনার সময়ে পুলিশ জানায় জাভেদ মোহাম্মদ কে আটক করা হয়েছে এলাহাবাদে বিজেপি বিরোধী আন্দোলনের  জন্য।

কিন্তু জাভেদ মোহাম্মদ নিজে আন্দোলনে অংশগ্রহন করেননি বা উদ্যোক্তাদের মধ্যেও ছিলেন না।

এরপর আফরিন ফাতিমার মা, বোন ও বাবা তিনজনকেই আটক করে পুলিশ।

এরপরেই আফরিন ফাতিমার কাছে নোটিশ আসে রবিবারের মধ্যে বাড়ি খালি করার, কারণ তাদের বাড়ি অবৈধ ভাবে নির্মিত তাই ভেঙে ফেলা হবে।

পুলিশ দাবী করেছে জাভেদ মুহাম্মদ গ্রেফতার করা হয়েছে কারণ সে দেশজুড়ে বনধের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। শুধু তাই নয়, সে লোককে এক জায়গায় জড় করে আন্দোলনের ছক কষছিল। পুলিশ আরোও দাবী করেছে সে ও তার মেয়ে মিলে ষড়যন্ত্র করছে।

বাড়ি ভাঙার নোটিশ নিয়ে পুলিশ দাবী করেছে গত ১০ মে তাদেরকে বাড়ির বিষয়ে নোটিশ পাঠানো হয়েছিল এবং ২৪ মে এর শুনানি ছিল, কিন্তু  তারা কোন উত্তর না দেয়নি।

রবিবার ১১ টার সময় আফরিনের বাড়ী ভাঙা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ছাত্রনেতা দাবী করেছেন তাদের কে কোন নোটিশ পাঠানো হয়নি এবং এটা বিজেপির বুল্ডোজার রাজনীতির অংশ।

ইতিমধ্যেই জাতীয় মহিলা কমিশনের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে আফরিন ফাতিমা, রাতে কোন মহিলাকে গ্রেফতার করার অনুমতি নেই পুলিশের, তারপরেও কেন করা হল, এই হেনস্থার জন্য মহিলা কমিশনের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন আফরিন ফাতিমা।

পুলিশ জানিয়েছে রবিবার ৯ টার সময় আফরিনের মা ও বোনকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

আফরিন ফাতিমার সমর্থনে ইতিমধ্যেই নেটিজেনরা আওয়াজ তুলছেন। Stand with Afreen Fatima হ্যাশট্যাগে টুইটারে ক্যাম্পেন চালাচ্ছেন শান্তিকামী মানুষ। নেটিজেনরা দাবী করছেন মানুষের মুখ বন্ধ করতে ভয় দেখাতেই এই কাজ করছে ইউপি পুলিশ।

সারা দেশের মানুষের কাছেও আবেদন করছেন তারা, আফরিন ফাতিমা, তার পরিবার ও সেইসাথে আটক কয়েকশো আন্দোলনকারীদের হয়েও আওয়াজ তুলছেন তারা।

উল্লেখ্য, নুপুর শর্মা গত ২৬ মে একটি টীভি চ্যানেলে নবী মুহাম্মদ (সাঃ) কে কুমন্তব্য করলে দেশে বিদেশে প্রতিবাদে ঝড় ওঠে। দেশের অন্যান্ত জায়গার সাথে সাথে উত্তরপ্রদেশের মুসলিমরাও নুপুর শর্মাকে গ্রেফতারের দাবীতে আন্দোলনে নামে।  কিন্তু উত্তরপ্রদেশ সরকার এই আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে ধরপাকড়, লাঠিচার্জ ও গ্রেফতার করা শুরু করে। প্রায় ৩০০০ আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে কেস করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

সম্পর্কিত খবর