আসন্ন বিশ্বকাপের পরই টি-২০ ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব ছাড়ছেন কোহলি

এনবিটিভি ডেস্ক: ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আর অধিনায়ক হিসেবে দেখা যাবে না বিরাট কোহলিকে। বৃহস্পতিবারই বিবৃতি দিয়ে কোহলী জানিয়ে দিলেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরেই এই ফরম্যাটে নেতৃত্বের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াবেন তিনি। কোচ রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

যে কোনও এক ধরনের ক্রিকেটে কোহলি যে দায়িত্ব ছাড়তে পারেন তা নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই আলোচনা চলছিল। সেটাই অবশেষে সত্যি হল। অনেকেই মনে করেছিলেন, কোহলী বোধহয় শুধু টেস্টের অধিনায়ক থাকবেন। একদিনের ক্রিকেট এবং টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে হয়তো দায়িত্ব নিতে দেখা যাবে রোহিত শর্মাকে। কিন্তু কোহলীর বিবৃতিতে পরিষ্কার, তিনি শুধু টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটেই দায়িত্ব ছাড়ছেন।

 

নেটমাধ্যমে বিবৃতিতে কোহলী লিখেছেন, ‘নিজের সম্পূর্ণ ক্ষমতা অনুযায়ী ভারতকে প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে এবং নেতৃত্ব দিতে পেরে আমি গর্বিত। ভারতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলা চলাকালীন যাঁরা আমাকে সমর্থন করেছেন তাঁদের সবাইকে ধন্যবাদ। সতীর্থ, কোচিং স্টাফ, কোচ এবং আমাদের জন্য যাঁরা প্রার্থনা করেছেন, সেই সমস্ত ভারতবাসীকে আমার তরফ থেকে ধন্যবাদ’।

 

কোহলির সংযোজন, ‘ওয়ার্কলোড খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। গত ৮-৯ বছর ধরে ক্রিকেটার হিসেবে এবং ৫-৬ বছর ধরে অধিনায়ক হিসেবে আমাকে যে অসহনীয় চাপ নিতে হয়েছে, তাতে ভারতের টেস্ট এবং একদিনের ক্রিকেটের দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার আগে আমার কিছুটা সময় দরকার। টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক থাকাকালীন আমি দলের হয়ে নিজের সর্বস্ব দিয়েছি। এ বার ব্যাটসম্যান হিসেবেও নিজের সেরাটা দেব’।

 

এরপরেই কোহলি নিজের দায়িত্ব ছাড়ার কথা জানিয়েছেন। লিখেছেন, ‘এই সিদ্ধান্তে আসতে আমার অনেক সময় লেগেছে। যারা আমার কাছের মানুষ, সেই কোচ রবি শাস্ত্রী এবং রোহিতের সঙ্গে কথা বলেই অক্টোবরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বোর্ড সচিব জয় শাহ এবং সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের পাশাপাশি নির্বাচকদের সঙ্গেও আমার কথা হয়েছে। নিজের সম্পূর্ণ ক্ষমতা দিয়েই ভবিষ্যতে ভারতীয় ক্রিকেটকে সেবা করে যাব’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *