অন্ধ্রপ্রদেশ,তেলেঙ্গানার ১৩৭ টা প্রাচীন ও ঐতিহাসিক মন্দির ও স্মৃতিসৌধ বন্ধ করল ASI

নিউজ ডেস্ক : দেশে ক্রমবর্ধমান করোনা সংক্রমনের কারণে অন্ধ্রপ্রদেশ এবং তেলেঙ্গানার ১৩৭ টি প্রাচীন ঐতিহাসিক মন্দির এবং স্মৃতিসৌধ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া। সংস্থাটির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, প্রাচীন মন্দির, স্মৃতিসৌধ এবং দুর্গ গুলিকে আগামী ১৫ই মে পর্যন্ত আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে ১৫ই মে বা তার আগে এগুলি খোলার ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। গতকাল নয়া দিল্লি থেকে আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার স্মৃতিসৌধ বিভাগের পরিচালক এম কে পাঠক এক বার্তায় অন্ধ্রপ্রদেশ এবং তেলেঙ্গানায় তাদের অধীনে থাকা সব স্মৃতিসৌধ গুলি বন্ধ রাখার বিষয়ে তাদের পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করেন।

 

স্মৃতিসৌধ গুলির মধ্যে ৮টি তেলেঙ্গানায় এবং ১২৯ টি অন্ধপ্রদেশে। উল্লেখ্য এই দুই দক্ষিণ ভারতের রাজ্যের বহু প্রাচীন মন্দির এবং স্মৃতিসৌধে পুণ্যার্থীদের সমাবেশের ফলে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে সংবাদমাধ্যম সূত্র এ খবরে জানা যাচ্ছে। তাই করোনা সংক্রমনের শৃংখল বিচ্ছিন্ন করার জন্য এই পদক্ষেপ জরুরি বলে ASI এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে।

করোনা সংক্রমনের কথা মাথায় রেখে ইতিমধ্যেই লকডাউনের ঘোষণা করেছে মহারাষ্ট্র। সপ্তাহান্তের লকডাউন চলছে উত্তরপ্রদেশ কর্ণাটক তামিলনাড়ু সহ আরো বেশ কিছু রাজ্যে। তবে অন্ধ্রপ্রদেশ এবং তেলেঙ্গানায় প্রাচীন ঐতিহাসিক স্মৃতিসৌধ বন্ধ করার উদ্যোগ নিলেও এখনো উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারে চলছে লক্ষ লক্ষ হিন্দু পুণ্যার্থীদের আগমনের মহাকুম্ভ মেলা। সেখানে গতকাল সীমিত সংখ্যক পুণ্যার্থীদের মধ্যে পরীক্ষা করার পরেও পাঁচ হাজার জনের বেশি করোনা সংক্রামিত অবস্থায় ধরা পড়েছেন। পশ্চিমবঙ্গে এখনো মোদী অমিত শাহ সহ বিজেপির নেতারা চালিয়ে যাচ্ছেন নির্বাচনী প্রচারাভিযান। নির্বাচনী জনসভায় ভিড়ের সঙ্গে নাকি করোনা সংক্রমন বৃদ্ধির কোন সংযোগ নেই, এমন অদ্ভুত দাবি করেছেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *